৬ দিন পর বন্ধ অ্য়ামাজ়ন বাক্স থেকে উদ্ধার পোষ্য, পাড়ি দিল ১০০ মাইল পথ

কত কিছুই না শুনেছেন, দেখেছেন। জলে ঝাঁপ দিয়ে আশি বছরের বৃদ্ধাকে সুইট সিক্সটিনও হতে দেখেছেন ‘আশিতে আসিও না’ ছবিতে। কিন্তু সে কথা বলতে গেলে বলা যায়, চলচ্চিত্রে কত কিছুই না হয়। এক কথায় গল্পের গরু গাছে ওঠে অহরহ। তবে অ্য়ামাজ়ন রিটার্ন বাক্সে (Amazon return package) জলহীন, খাবার ছাড়া ছয় দিন ধরে একশো মাইল পথ পাড়ি দেওয়া এক পোষ্যের বেঁচে ফেরার গল্প যদি বলি, বিশ্বাস করবেন!

আজ্ঞে হ্যাঁ, এই ঘটনা সত্যি। ঘটনাটি ঘটেছে আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়াতে। বাড়ি থেকে অ্য়ামাজ়ন রিটার্ন পার্সেল ফেরত যাওয়ার পর পোষ্য বিড়াল গ্যালিনাকে আর খুঁজে পাচ্ছিলেন না তার মালিক ক্লার্ক। এপ্রিলের দশ তারিখ নাগাদ ঘটনাটি ঘটে। তারপরে এক সপ্তাহ যাবত তাকে বহু খোঁজাখুঁজির পরও যখন ক্লার্ক হাল ছেড়ে দেন, তখনই তার কাছে আসে একটি মেইল ও ফোন কল। সেখানে বলা হয়, গ্যালিনার মাইক্রোচিপটি স্ক্যানারে ধরা পড়েছে।

প্রসঙ্গত, আমেরিকান ভেটেরিনারি মেডিক্য়াল অ্যাসোসিয়েশনের (The American Veterinary Medical Association) তথ্য অনুযায়ী, তিন ভাগের এক ভাগ পোষ্য তার জীবনকালে কখনও না কখনও হারিয়ে যায়। তাই তাদের দেহে যদি একটি মাইক্রোচিপ অর্থাৎ তারা কোথায় আছে তা অনুমান করতে পারে এমন একটি ক্ষুদ্র যন্ত্র লাগিয়ে দেওয়া হয়, তবে তাদের খুঁজে পাওয়ার পদ্ধতি অনেক সহজ হয়ে ওঠে। যেমনটা গ্যালিনার ক্ষেত্রেও হয়েছে ‌।

ছয় দিন পর অ্য়ামাজ়নের কর্মীরা পোষ্য বিড়ালটিকে উদ্ধার করে। তখন রীতিমতো চক্ষু চড়কগাছ সকলের। কারণ ইউটা থেকে ক্যালিফোর্নিয়ার (Utah to California ) দূরত্ব প্রায় একশো মাইল। এই দুর্গম পরিস্থিতিতে কীভাবে বেঁচে আছে সেটাই তখন সকলের মনে প্রশ্ন। শেষমেষ শোচনীয় অবস্থায় বিড়ালটিকে উদ্ধার করে ভেটেরিনারি বিভাগে চিকিৎসা শুরু হয়। অবাক করা এই খবরটি KSL TV  প্রথম প্রকাশ্যে এনেছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.