গরমে শহর থেকে দূরে কোথাও, গন্তব্য হোক এই ৭টি হিল স্টেশন

অস্বস্তিকর গরম আর তাপপ্রবাহে রীতিমতো কাবু শহরবাসী। এর মাঝেই রোজকার একঘেয়ে রুটিন, অফিস-কাছারি। মাঝে মাঝে কোথাও যেন হাঁফিয়ে উঠছে সবাই। তবে একটু চেষ্টা করলেই শহর ছেড়ে দূরে কোথাও পাড়ি দেওয়া যেতে পারে স্নিগ্ধতা আর নির্জনতার সন্ধানে। এক্ষেত্রে গন্তব্য হোক পাহাড়।

পাহাড় মানেই বঙ্গবাসীর বড্ড কাছের জায়গা হল উত্তরবঙ্গ। হিল স্টেশনের মনোরম আবহাওয়া ও আশপাশের মুগ্ধ করা সৌন্দর্য আপনার দিন কয়েকের সঙ্গী হয়ে উঠুক।

তাই গরম থেকে বাঁচতে ও নিজের সামার ভ্যাকেশন বা প্ল্যান করা লম্বা উইকেন্ড উপভোগ করতে বেরিয়ে পড়ুন রিশপের উদ্দেশে। প্রকৃতির সান্নিধ্যে কাটুক গোটা একটা দিন। হারিয়ে যান ঘন জঙ্গলের নির্জনতায়।

কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ সৌন্দর্য প্রত্যক্ষ করতে হলে তিনচুলে ঘুরে আসা যেতে পারে। কমলালেবুর বিস্তীর্ণ বাগান, পাহাড়ের ঢালে চা বাগান অদ্ভুত নেশায় কাছে ডাকবে আপনাকে।

অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় হলে সান্দাকফু আর ফালুট ঘুরে আসতে পারেন। প্রিয়জনকে নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন ট্রেকিংয়ে। উল্লেখ্য, ১১,৯২৬ ফুট উচ্চতায় রয়েছে সান্দাকফু আর সিঙ্গালিয়া রেঞ্জের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শৃঙ্গ হল ফালুট।

আপনার হিল স্টেশন উইশলিস্টের তালিকায় থাকতে পারে লাভা ও লোলেগাঁও। কালিম্পঙের লাভা বিখ্যাত নেওড়া ভ্যালি জাতীয় উদ্যানের জন্য, অন্যদিকে ক্যানোপি ওয়াকের মজা নিতে লোলেগাঁও আসতেই হবে।

মিরিক। পাহাড় প্রেমীদের অন্যতম পছন্দের জায়গা। পাইনের জঙ্গল, বিঘার পর বিঘা সাজানো বাগান আর সুমেন্দু লেকের অপরূপ সৌন্দর্য আপনাকে কাছে টানবেই।

কার্শিয়াং। দার্জিলিং ও শিলিগুড়ির মাঝে প্রকৃতির এক অনবদ্য উপহার হল কার্শিয়াং। জঙ্গল আর বিঘার পর বিঘা চায়ের বাগানের মাঝে নিশ্চিন্তে কাটাতে পারেন অনেকটা সময়। তবে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু মিউজ়িয়াম ও আম্বুটিয়া চা বাগান ঘুরে দেখতে ভুলবেন না।

কালিম্পং। উত্তরবঙ্গ তথা সমগ্র পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে এক অনন্য সুন্দর পাহাড়ি জায়গা হল কালিম্পং। বৌদ্ধ মোনাসটেরি, পাইনের জঙ্গল আর পাহাড়ি অর্কিড মুগ্ধ করবে আপনাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.