T-20 ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জয় কাদের? দেখুন একনজরে

শুক্রবার ইডেন গার্ডেন্সে ইতিহাস তৈরি করেছে পঞ্জাব কিংস। কলকাতা নাইট রাইডার্সের দেওয়া ২৬২ রানের লক্ষ্যমাত্রা অনায়াসে করে দিয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে তারা। কিন্তু জানেন কী শুধু পঞ্জাব কিংস নয় এমন নজির রয়েছে আরও একাধিক দলের। আসুন দেখে নেওয়া যাক এক নজরে বিশ্ব ক্রিকেটের সেরা ৫ রান চেজ়।

২৬২ পঞ্জাব কিংস বনাম কলকাতা নাইট রাইডার্স (IPL ২০২৪)

IPL ২০২৪ যেন ব্যাটসম্যানদের স্বর্গ রাজ্য। প্রায় প্রতিদিনই চার ছক্কা হাকিয়ে ২০০ রান করছে প্রতিটি দল। এক ম্যাচে ২৫০ রানের গণ্ডি পেরোনোর রেকর্ডও নেহাত কম নয়। শুক্রবার তেমনই এক বিধ্বংসী ক্রিকেট ম্যাচের সাক্ষী থাকল কলকাতাবাসী।

এদিন প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নারিন ও সল্টের সৌজন্যে ২৬১ রান করে কলকাতা নাইট রাইডার্স। যখন প্রথম ইনিংসের পরই সবাই ভেবেছিল এই ম্যাচ সহজেই জিতে নেবে কলকাতা তখনই ওপেন করতে এসে রুদ্ররূপ ধারণ পঞ্জাবের দুই ওপেনারের। জনি বেয়ারস্টোর অপরাজিত ১০৮ রান ও প্রভসিমরান সিং-এর ৫৪ রান অনেকটাই কাজ সহজ করে দেয় পঞ্জাবের জন্য। ২৮ বলে ৬৮ রান করে কলকাতার কফিনে শেষ পেরেক পুতে জয় ছিনিয়ে নেয় শশাঙ্ক সিং।

২৫৯ সাউথ আফ্রিকা বনাম ওয়েস্টইন্ডিজ (২০২৩)

এটি আন্তর্জাতিক T-20 ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান চেজ়। জনসন চার্লসের ৪৬ বলে ১১৮ রান ও কাইল মায়ার্সের ২৭ বলে ৫১ রানের সৌজন্যে প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৫৮ রান করে ওয়েস্টইন্ডিজ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে কুইন্টন ডি ককের শতরান ও হেনড্রিক্সের ২৮ বলে ৬৮ রান এবং শেষে অ্যাডাম মার্কামের ২১ বলে ৩৮ রানের সুবাদে জয় ছিনিয়ে নেয় সাউথ আফ্রিকা।

২৫৩ মিডিলসেক্স বনাম সুরি (T-20 ব্লাস্ট ২০২৩)

উইল জ্যাকের ৪৫ বলে ৯৬ রান ও লরিস ইভান্সের ৩৭ বলে ৮৫ রানের সুবাদে প্রথমে ব্যাট করে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৫২ রান করে সুরি। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মিডিলসেক্সের ক্যাপ্টেন স্টিফেন ইস্কেনাজি ৩৯ বলে ৭৩ রান করেন। এছাড়াও রায়ান হিগিনস ও ম্যাক্স হোল্ডেন যথাক্রমে ৪৮ ও ৬৮ রান করেন। ফলস্বরূপ ৪ বল বাকি থাকতেই জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয় মিডিলসেক্স।

২৪৪ অস্ট্রেলিয়া বনাম নিউজিল্যান্ড (২০১৮)

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২৪৩ রান করে নিউজিল্যান্ড। মার্টিন গুপ্তিল ৫৪ বলে ১০৫ ও কলিন মুর্ন ৩৩ বলে ৭৬ রান করেন। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে রান তাড়া করতে নেমে ক্যাপ্টেন ডেভিড ওয়ার্নার ২৪ বলে ৫৯ রান ও ডারসি শর্ট ৪৪ বলে ৭৬ রান করেন। এছাড়াও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১৪ বলে ৩১ ও মার্কাস স্টোনিস ১৪ বলে ৩৬ রান করে জয়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

২৪৩ মুলতান সুলতান বনাম পেশওয়ার জালমি (পাকিস্তান সুপার লিগ ২০২৩)

পাকিস্তান সুপার লিগের এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৪২ রান করে পেশওয়ার। রান তাড়া করতে নেমে ৫ বল বাকি থাকতেই জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয় মুলতান সুলতান। রিলি রোসো ৫১ বলে ১২১ রান করে জয়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.