আউট ঘিরে বিতর্ক, আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে মাঠ ছাড়লেন বিরাট

কলমে – দীপঙ্কর পাল

IPL-র ৩৬ নম্বর ম্যাচে বেঙ্গালুরুকে হারিয়ে পয়েন্টস টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এল কলকাতা নাইট রাইডার্স। রবিবাসরীয় সন্ধ্যায় ইডেনে এক হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে কোহলিদের ১ রানে হারাল নাইট ব্রিগেড। তবে সবকিছুর মাঝে বিতর্কের ঝড় উঠেছে বিরাটের আউট নিয়ে। হর্ষিত রানার ফুলটস বলে কট অ্যান্ড বোল্ডের শিকার হন তিনি। আর সেই আউট নিয়েই উঠছে প্রশ্ন। যদিও বল কোমরের ওপরে ছিল বলেই দাবি বিরাটের। তবে আম্পায়ারের আউটের সিদ্ধান্তে একপ্রকার ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি।


কলকাতার ২২২ রানের জবাবে ব্যাট হাতে ক্রিজে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিলেন বিরাট। প্রথম বলে ৪ মেরে ইনিংসের সূচনা করেন। শুধু তাই নয়, প্রথম ওভারের শেষ বলে পুল শটে একটি ছয়ও মারেন। পরের ওভারে মিচেল স্টার্কের বলে এক অনবদ্য শটে ছয় হাঁকিয়ে মাঠে উপস্থিত ভক্তদের মন জয় করে নেন তিনি। কিন্তু বিপত্তি ঘটল তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে। হর্ষিত রানার ফুলটস বলে কট অ্যান্ড বোল্ডের শিকার হন কোহলি। আম্পায়ারের আউটের সিদ্ধান্তে খুশি না হয়ে রিভিউ নিয়েও রক্ষে মেলেনি। থার্ড আম্পায়ার আউটের সিদ্ধান্তে অনড় থাকায় একপ্রকার ক্ষোভ উগড়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। ৭ বলে ১৮ রান করে ফিরে যেতে হয় তাঁকে। প্যাভিলিয়নে ফেরার পথে আম্পায়ারেকে বোঝাতে চাইছিলেন যে, বল তাঁর কোমরের ওপরেই ছিল।


কোনও ফুলটস বল কোমরের ওপরে রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখতে এক নতুন প্রযুক্তির ব্যবহার করা হচ্ছে এবারের IPL- এ। যেখানে মাটি থেকে ব্যাটারের কোমরের উচ্চতার সঙ্গে বলের উচ্চতাকে বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। সেই প্রযুক্তির সাহায্যে দেখা যায়, বিরাটের কোমরের উচ্চতা ১.০৪ মিটার। যেখানে বলের উচ্চতা ছিল ০.৯২ মিটার। যদিও ক্রিজ থেকে কিছুটা এগিয়ে এসে শটটি খেলেছিলেন তিনি। ফলে বল তাঁর কোমরের ওপরে ছিল বলেই মনে হচ্ছিল। তবে প্রযুক্তি অনুযায়ী নর্মাল পজিশনে থাকলে বল তাঁর কোমরের নিচেই থাকত বলে রিপ্লেতে দেখা যাচ্ছে। তাই মাঠের আম্পায়ারের আউটের সিদ্ধান্তই বহাল থাকে। আর এই সিদ্ধান্ত নিয়েই বিতর্কের দানা বেঁধেছে ক্রিকেট মহলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.