বাঁকড়া পঞ্চায়েত অফিসে গুলি! অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা প্রধানের

ভরদুপুরে হাওড়ার বাঁকড়া ৩ নং পঞ্চায়েত অফিসের ভেতরে চলল গুলি। অভিযোগ মুখ ঢেকে একদল দুষ্কৃতী ৪-৫ রাউন্ড গুলি চালায়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, পঞ্চায়েত প্রধানকে প্রাণে মারার জন্য এই হামলা করা হয়েছে। যদিও ঘটনায় অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পান তিনি, কিন্তু জখম হয়েছেন প্রধানের বাবা সহ আরও একজন। কিন্তু ঘটনার নেপথ্যে কি রয়েছে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব? প্রধানের বক্তব্য থেকে কিন্তু তেমনই ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।

মহিলা পঞ্চায়েত প্রধান টুকটুকি শেখের দাবি, তিনি যখন অফিসে বসে ছিলেন তখন তাঁর সঙ্গে দেখা করার নাম করে ৩-৪ জন মুখ ঢেকে প্রবেশ করে। এরপরই তাঁকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে ওই দুষ্কৃতীরা। গুলি প্রধানের গায়ে না লাগলেও তাঁর বাবা ও কাকা ঘটনায় জখম হন। দ্রুত তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থানে উপস্থিত হয় পুলিশ, নামানো হয় র‍্যাফ। ভোটের মধ্যে এমন ঘটনায় যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

পুরো ঘটনার পিছনে দলেরই একাংশ জড়িত বলে অভিযোগ প্রধানের। মূল অভিযোগ বিধায়ক প্রতিনিধি শেখ সাজিদের বিরুদ্ধে, এর আগে সে প্রধান সহ সদস্যদের খুনের হুমকিও দিয়েছিল। প্রধানের দাবি, এমন ঘটনা ঘটতে পারে আগে থেকে অনুমান করে পুলিশেও জানানো হয়েছিল, কিন্তু প্রশাসনের তরফে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। ঘটনার পর সক্রিয় প্রশাসন, ইতিমধ্যেই আটক করা হয়েছে ২ জনকে। যদিও তদন্তের স্বার্থে তাদের নাম পরিচয় এখনও প্রকাশ করা হয়নি। তবে মূল অভিযুক্ত শেখ সাজিদ বর্তমানে পলাতক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.