পন্থ-বুমরার ভরসায় পাকিস্তানকে ৬ রানে হারাল ভারত

T20 বিশ্বকাপের সবচেয়ে চিত্তাকর্ষক ম্যাচের দিকে তাকিয়েছিল গোটা বিশ্ব। প্রথমে বৃষ্টি, পরে অল্পরানেই গুটিয়ে যায় ভারত। পাকিস্তানের শুরুও ভালো হয়েছিল। এই পরিস্থিতিতে যখন সবাই আশা ছেড়ে দিচ্ছে, সেখান থেকেই ছন্দে ফেরা শুরু ভারতীয় টিমের। দারুণ লড়াই আর শেষমেশ মাত্র ১১৯ রান করেও পাকিস্তানকে ১১৩ রানে আটকে দিল ভারত। বজায় রাখল জয়ের ঐতিহ্য।

টসে জিতে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। ভারতীয় একাদশ অপরিবর্তিত থাকলেও পাকিস্তানে আজম খানের বদলে ইমাদ ওয়াসিম খেলেন। তবে শুরুতেই বৃষ্টি আর বন্ধ হয়ে যায় ম্যাচ।

কিছুক্ষণ পর খেলা শুরু হয় কিন্তু শুরুতেই আউট হয়ে যান বিরাট কোহলি। নাসিম শাহর বলে আউট হয়ে যান তিনি। পরের ওভারেই প্যাভিলিয়ন ফেরেন রোহিত শর্মা। ১২ বলে ১৩ রান করেন তিনি। তাঁর উইকেট নেন শাহিন শাহ আফ্রিদি। পিচে বল থমকে আসছিল আর জেরেই আগে ব্যাট চালিয়ে বিপাকে পড়েন দুই ওপেনার। শুরুর ধাক্কা সামলাতে মাঠে নামেন অক্ষর। সঙ্গী ঋষভ পন্থ। এই জুটির ব্যাটিংয়ে ভরসা করেই রান ওঠে। পরে নাসিম শাহের বলে বোল্ড হন অক্ষর। এদিকে চালিয়ে খেলছিলেন পন্থ। ৩১ বলে ৪২ রান করেন তিনি। সূর্যকুমার এসে তেমন কিছু করতে পারেননি। শিবম দুবে, হার্দিক, জাদেজাও এসে তাড়াতাড়ি ফিরে যান আর ১১৯ রানে শেষ হয়ে যায় ভারতের ইনিংস। পাকিস্তানের পেসারদের সামনে তেমন সুবিধা করতে পারেননি ভারতীয় ব্যাটাররা।

মাত্র ১১৯ রানের লক্ষ্যমাত্রা। ভারতের জেতার আশা প্রায় ছেড়ে দিয়েছিলেন সবাই। ২৬ রানের মাথায় প্রথম উইকেট পড়ে। বুমরা থেকে সিরাজ সবাই বল হাতে লড়ে সমানে লড়ে চলেছেন। পাকিস্তানের প্রথম উইকেটটি তুলে নেন বুমরা। রিজ়ওয়ানকে বোল্ডও করেন তিনি। ধীরে ধীরে পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইন আপ নড়বড়ে হতে শুরু করল। বুমরার ৩ উইকেটের পাশাপাশি হার্দিক পান্ডিয়া নিলেন ২টি উইকেট ও একটি করে উইকেট নিলেন আরশদীপ সিং ও অক্ষর পাটেল।

কঠিন পরিস্থিতিতে ব্যাট হাতে পন্থ রীতিমতো সাহস দেখালেন। আর বল হাতে তেমনই বিরোধী শিবিরকে কাবু করে ফেললেন বুমরা। শেষমেশ ১১৩ রানে থেমে গেল পাকিস্তানের ইনিংস আর শেষ হাসি হাসল রোহিত-বিরাটের ভারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.