উড়ান ৩ ঘণ্টা দেরিতে, বিমানবন্দরে বসেই স্বামী গানের হুক লাইন লিখলেন শ্রীজাত

বছরের শুরু থেকেই পুষ্পা ২ নিয়ে সিনেপ্রেমীদের উত্তেজনা তুঙ্গে। টিজার, একের পর এক গান সেই কৌতূহল ক্রমে বাড়িয়ে চলেছে। ইতিমধ্যেই আল্লু অর্জুন ও রশ্মিকার “স্বামী” গানটিও সবার মন জিতে নিয়েছে। একাধিক ভাষায় লেখা হয়েছে সেই গান। বাংলায় স্বামী গানটি লেখার পিছনে রয়েছে এক মজার গল্প। সেই গল্পই এবার ভাগ করে নিলেন গীতিকার শ্রীজাত।

শ্রীজাতর কথায়, তিনি তখন নিউজার্সিতে। ভরদুপুরে তাঁর স্ত্রীর মাসি – মেসোর বাড়িতে উচ্ছেভাজা দিয়ে সবে ভাত মেখেছেন। এমন সময় গানের হুক লাইনটা একটু জমিয়ে লেখার আর্জি জানালেন শ্রেয়া। তাও আবার সুদূর চেন্নাই থেকে। মাস দুয়েক আগে সঙ্গীত পরিচালক দেবী শ্রী প্রসাদের স্টুডিয়োতে গান লিখে এসেছিলেন শ্রীজাত। লাইন ধরে ধরে সেই গান মিলিয়ে নেন শ্রেয়া। কিন্তু হুক লাইন নিয়ে সমস্যা দেখা দিল। তাই নতুন লাইন লিখে পাঠানোর আর্জি এল।

সামনেই রেকর্ডিং। তাই হাতে বেশি সময় নেই।এদিকে শ্রীজাতকে অন্যত্র পাড়ি দিতে হবে বিমানে। তাই বিষয়টি প্রায় অসম্ভব হয়ে দাঁড়াচ্ছিল। শ্রীজাতর নিজের উপর ভরসা না থাকলেও শ্রেয়া বলেছিলেন, তুমি পারবেই ; আমাকে লিখে পাঠিও।

এদিকে এয়ারপোর্টে পৌঁছাতেই জানা গেল উড়ান তিন ঘণ্টা দেরিতে। প্রথমে বিরক্ত লাগছিল। পরে বাকি থাকা কাজে হাত পাকানো শুরু করেন তিনি। স্ত্রী এদিক ওদিক ঘুরে দেখছিলেন আর সেই ফাঁকেই চলছিল কাজ।একবার লিখেই মনে ধরল আর পাঠিয়ে দিলেন শ্রেয়াকে। ওদিক থেকে উত্তর এল পারফেক্ট। বাকিটা সবার জানা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.