মঙ্গল গ্রহে হিমের পরশ

এমনিতেই মঙ্গল গ্রহে প্রাণের হদিশ নিয়ে জল্পনার অন্ত নেই। তবে প্রাণ না মিলুক হিম মিলেছে। তাও আবার এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টন জলপূর্ণ হিম যা প্রায় ৬০ টি অলিম্পিক সুইমিংপুলের সমান। যদিও এই হিমের চাদর ভীষণই পাতলা এবং এটি থাকছে ক্যালডেরার চারপাশের বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে ।

ওলিম্পাস মনস হল মঙ্গল গ্রহের সবথেকে উঁচু আগ্নেয়গিরি। এটি থার্সেস আগ্নেয় মালভূমির অন্তর্গত। এই অঞ্চলটিতেই শীতের প্রত্যেক সকালে একটি হিমের চাঁদোয়া সৃষ্টি হচ্ছে। সূর্যালোকে বাষ্পীভূত হওয়ার ঠিক আগে পর্যন্ত থাকছে চাঁদোয়াটি। এমনটাই প্রকাশিত হয়েছে নেচার জিও সায়েন্সের একটি জার্নালে।

মঙ্গল পৃষ্ঠ থেকে ১৩.৫ মাইল উপরে এই হিমকে নিরীক্ষণ করেছেন বৈজ্ঞানিকরা। লাল গ্রহটির বিষুবরেখার ভীষণ কাছে চিহ্নিত হওয়ায় পুরোনো একটি তত্ত্বের বৈধতাকে রীতিমত চ্যালেঞ্জ করছেন তাঁরা। সেই পুরোনো তত্ত্ব অনুযায়ী ধরেই নেওয়া হয়েছিল মঙ্গলের পাতলা বায়ুমণ্ডল ও প্রখর তাপমাত্রায় হিমের উৎপত্তি এক কথায় অসম্ভব।

আপাতত, বৈজ্ঞানিকদের পুঙ্খানুপুঙ্খ গবেষণা চলছেই। মঙ্গল গ্রহে শীতের মরশুম আপাতত হিমের চাদরে নতুনভাবে আবৃত। বলা তো যায় না, পাইলেও পাইতে পারেন অমূল্য জীবন!

সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল-https://www.youtube.com/@NagarNama424

ফলো করুন ফেসবুক পেজ-https://www.facebook.com/nagarnamanews

Leave a Reply

Your email address will not be published.