আপনার সোনার সংসার, গড়বে ভারত সরকার

“আমার সন্তান যেন থাকে দুধে ভাতে।” শুধু সন্তানের ভবিষ্যত নয় আপনার জীবনকেও দুধে ভাতে রাখতে সোনার সুযোগ দিচ্ছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। সোভেরিয়ান গোল্ড বন্ড, RBI-র ডিজিট্যাল গোল্ড বন্ড এই নামেই বাজারে পরিচিত। নির্দিষ্ট সময় অন্তর এই বন্ড বাজারে ছাড়া হয়। প্রতি ১ গ্রাম সোনার দাম অনুসারে একটি বন্ডের দাম নির্ধারণ করা হয়ে থাকে। যেকোনও বড় ব্যাঙ্ক, পোস্ট-অফিস ও স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে এই বন্ড আপনি কিনতে পারবেন। স্টক এক্সচেঞ্জ থেকে না কিনলে এই বন্ড ৮ বছরের জন্য লক-ইন থাকবে। পরে চাইলে আরও ৩ বছর সময় বৃদ্ধি করা যায়।


এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে কেন ফিক্সড ডিপোজ়িট ছেড়ে আপনি এই গোল্ড বন্ডে টাকা রাখবেন? এখানে ৮ বছরে যে পরিমাণ আপনি রিটার্ন পাবেন তাতে কোনও ট্যাক্স দিতে হবে না। পাশাপাশি প্রত্যেক বছর RBI আপনাকে ২.৫ শতাংশ হারে সুদ দেবে। তবে এই সুদের উপর ট্যাক্স দিতে হবে। আসুন একটা সহজ হিসাব করে নেওয়া যাক আপনার টাকার রিটার্নের উপর। মনে করা যাক, আপনি ১ লক্ষ টাকা রাখবেন এই বন্ডে। ৮ বছরে সোনা ২৫ শতাংশ হারে রিটার্ন দিল। পাশাপাশি আপনি প্রতি বছর ২.৫ শতাংশ হারে সুদ পেলেন। তাহলে আপনার মোট টাকার পরিমাণ হবে ১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা। ২০১৬-১৭ সালে ১ লক্ষ টাকার বন্ডের এখন বাজার মূল্য আনুমানিক ২.৫ লক্ষ টাকা।


এবার এই বন্ডের কিছু ভালো ও খারাপ দিক আলোচনা করা যাক।

ভালো দিক:

> ভারত সরকারের গ্যারান্টি সহকারে নিশ্চিত রিটার্নের সুযোগ।
> রিটার্নের উপর কর ছাড়ের সুবিধা।
> বাজারের ওঠা-নামা থেকে আপনার সঞ্চয়কে বাঁচানো যাবে।

খারাপ দিক:

> সোনার দাম আগামীদিনে পড়ে গেলে আপনার টাকার পরিমাণ কমে যাবে।
> ৮ বছরের আগে বিক্রি করলে কর ছাড়ের সুযোগ পাওয়া যাবে না।
> সরকার যদি নিয়মে বদল আনে তাহলে তার প্রভাব পড়বে আপনার সঞ্চয়ে।

নতুন করে আবার কবে বন্ড ছাড়া হবে সেই সমস্ত তথ্য জানতে নিয়মিত নজর রাখুন নগরনামা ওয়েবসাইটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.