কলকাতায় বন্ধ হল ৭৭ বছরের পুরনো ব্রিটানিয়ার কারখানা

কলকাতার ৭৭ বছরের পুরনো কারখানা বন্ধ করে দিচ্ছে ব্রিটানিয়া। গত সোমবার সেই মর্মেই ঘোষনা করেছে FMCG জায়েন্টটি। এবার তাই নিয়েই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তর্জা ও বিতর্ক। একদিকে বিরোধী দল বিজেপি কারখানা বন্ধের জন্য তৃণমূল কংগ্রেসকে দায়ী করেছে। আবার শাসক দলের বক্তব্য কারখানা বন্ধের পিছনে রয়েছে কোম্পানির অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থাপনার সমস্যা।

১৯৪৭ সালে তারাতলায় তৈরী হয় কারখানাটি। এটি যে শুধুমাত্র প্রাচীন তাই নয়, মুম্বইয়ের পর এটিই ছিল ভারতে ব্রিটানিয়ার দ্বিতীয় প্রোডাকশন ইউনিট। ফলে ঐতিহাসিক গুরুত্বও রয়েছে কারখানাটির। জানা যাচ্ছে, গত মে মাসেই কারখানাটিতে উৎপাদন বন্ধ করে দেয় ব্রিটানিয়া। কোম্পানি কর্তৃক জানা গেছে উৎপাদন ক্ষমতা বাড়াতেই এবং অর্থনৈতিক লোকসান আটকাতেই পুরনো কারখানাগুলি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্রিটানিয়া। অন্যান্য মেট্রো শহর যেমন মুম্বই ও চেন্নাইয়ের পুরনো কারখানাও এর আগে বন্ধ করেছে কোম্পানিটি।

কিন্তু ঘটনাটি নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুকান্ত মজুমদার রাজ্য সরকারের সমালোচনা করে বলেছেন, “যে দল সর্বদা তোলাবাজি করে এবং যেখানে মুখ্যমন্ত্রীর শিল্প-বিরোধী ভাবমূর্তি রয়েছে সেখানে শিল্প আসবে না।”

এছাড়া বিজেপি আইটি সেলের প্রধান অমিত মালভিয়া X-এ একটি পোস্ট করে কারখানার বন্ধের জন্য অতীতের বাম শাসন ও তৃণমূল উভয়কেই দায়ী করেছেন। তাঁর মতে CPIM আমলের ইউনিয়নবাজি এবং তৃণমূল কংগ্রেসের তোলাবাজি ও সিন্ডিকেটের জন্যই বন্ধ হয়েছে কারখানাটি।

যদিও তৃণমূলের নেতা কুণাল ঘোষ অভিযোগগুলি অস্বীকার করেছেন এবং জানিয়েছেন ব্রিটানিয়ার অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থাপনার সমস্যার কারণে বন্ধ হচ্ছে কারখানাটি।

তবে কারখানা বন্ধের ফলে সবচেয়ে বেশী প্রভাবিত হবেন সেখানের স্থায়ী ও অস্থায়ী কর্মচারীরা। ১২২ জন স্থায়ী কর্মচারী এবং প্রায় ২৫০ জন চুক্তিভিত্তিক কর্মী কাজ করতেন কারখানাটিতে। যাদের মধ্যে অনেকেই এক দশকেরও বেশি সময় ধরে কাজ করছেন সেখানে।

যদিও ব্রিটানিয়া ক্ষতিগ্রস্ত কর্মীদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষণা করেছে। দশ বছরের বেশি সময় ধরে চাকরি করা স্থায়ী কর্মচারীদের ২২ লক্ষ টাকা এবং সাত বছরের চাকরি করার জন্য ১৮ লক্ষ টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি জানান হয়েছে কোম্পানির তরফে।

সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল-https://www.youtube.com/@NagarNama424

ফলো করুন ফেসবুক পেজ-https://www.facebook.com/nagarnamanews

Leave a Reply

Your email address will not be published.