বৃষ্টি খুঁজে পেল তার ঠিকানা

এবার যেন অভিমানী বসন্ত। শীতের পর সোজাসুজি গরমে পুড়েছে বাংলা। কলকাতা সহ জেলায় জেলায় রোজ তাপপ্রবাহ। তাপমাত্রা কখনও ৪০ ছুঁইছুঁই,কখনও বা ৪০ পেরিয়ে নতুন রেকর্ড করেছে। আর এক ফোঁটা বৃষ্টির অপেক্ষায় যেন চাতক পাখির মতো বসেছিল কলকাতাবাসী। হাওয়া অফিসের তরফে বৃষ্টির সম্ভাবনার কথাটি শোনার জন্য যেন কান পেতে বসেছিল সবাই। এরই মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক মিমের ভিড়। কেউ কেউ তো লিখে বসল, বৃষ্টির নামে নিখোঁজ বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে, কেউ খুঁজে পেলে পাঠিয়ে দিও এই ঠিকানায়।

সোমবার সেই দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটল । মেঘ ঘনিয়ে এল তিলোত্তমায়। হালকা মৃদু হাওয়ায় সে তার আসার আভাস দিল, এক কথায় বলতে গেল বৃষ্টি যেন তার ঠিকানা খুঁজে পেল। তারপর মেঘের বুক চিরে আসা বজ্রপাত, ঝড়ো হাওয়া আর ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি। আর গোটা সন্ধ্যাজুড়ে ভিজল তিলোত্তমা। জানালার ধারে গাছগুলিকে দেখে মনে হচ্ছিল প্রখর রৌদ্রে সারা বেলা ঘেমে-নেয়ে চান করার পর তাদের মা যেন খুব যত্ন করে তাদের স্নান করিয়ে দিচ্ছে। যেমন ছোটোবেলায় আমাদের স্নান করিয়ে দিত মা।

চলল প্রবল বৃষ্টিপাত, রাস্তায় কেউ ছাতা মাথায়, কেউ বাইকে। না আজ জল জমা নিয়ে বিরক্তি নেই। বরং চোখে-মুখে একটা স্বস্তি। খানিক পর থামল বৃষ্টি আর যাওয়ার পথে একটা মিষ্টি ঠান্ডা বাতাস উপহার দিয়ে গেল তিলোত্তমাকে। তখনই রেডিয়োতে বেজে উঠলো কিশোর কুমারের রিমঝিম গিরে সাবন…।

সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্য়ানেল- https://www.youtube.com/@NagarNama424

ফলো করুন ফেসবুক পেজ– https://www.facebook.com/nagarnamanews

ফলো করুন X হ্য়ান্ডেলে – https://twitter.com/nagarnama

Leave a Reply

Your email address will not be published.